পৃথিবীর বয়স কত?

সৃষ্টির শুরুতেই ঈশ্বর মহাকাশ ও পৃথিবী সৃষ্টি করলেন। -আদি ১:১
কারণ আকাশে ও পৃথিবীতে, যা দেখা যায় আর যা দেখা যায় না, সব কিছু তাঁর দ্বারা সৃষ্ট হয়েছে… -কলসীয় ১:১৬
উত্তরে যীশু বললেন, “আপনারা কি পড়েন নি, সৃষ্টিকর্তা প্রথমে তাঁদের পুরুষ ও স্ত্রীলোক করে সৃষ্টি করেছিলেন… মথি ১৯:৪
কিন্তু এ-ও লেখা আছে যে, সৃষ্টির আরম্ভে ‘ঈশ্বর তাদের পুরুষ ও স্ত্রীলোক করে সৃষ্টি করেছিলেন। মার্ক ১০:৬
একটি মানুষের মধ্য দিয়ে পাপ জগতে এসেছিল ও সেই পাপের মধ্য দিয়ে মৃত্যুও এসেছিল। সব মানুষ পাপ করেছে বলে এইভাবে সকলের কাছেই মৃত্যু উপস্থিত হয়েছে। রোমীয় ৫:১২
একজন মানুষের মধ্য দিয়ে মৃত্যু এসেছে বলে মৃত্যু থেকে জীবিত হয়ে ওঠাও একজন মানুষেরই মধ্য দিয়ে এসেছে। আদমের সংগে যুক্ত আছে বলে যেমন সমস্ত মানুষই মারা যায়, তেমনি খ্রীষ্টের সংগে যারা যুক্ত আছে তাদের সবাইকে জীবিত করা হবে; ১ করিন্থীয় ১৫:২১-২২
শাস্ত্রে এইভাবে লেখা আছে, “প্রথম মানুষ আদম জীবন্ত প্রাণী হলেন।” আর শেষ আদম জীবনদানকারী আত্মা হলেন। ১ করিন্থীয় ১৫:৪৫
আদম তাঁর স্ত্রীর নাম দিলেন হবা (যার মানে “জীবন”), কারণ তিনি সমস্ত জীবিত লোকদের মা হবেন। আদি ৩:২০

উপরের উক্তি অনুযায়ী আদম এবং হবাকে পৃথিবীর শুরুতেই সৃষ্টি করা হয়েছে। আদমের পূর্বে মৃত্যু ছিলো না এবং হবা সমস্ত লোকদের মা। অতএব এই সময় থেকেই আমাদের গণনা শুরু হবে। আদমের ১৩০ বছর বয়সে শেথ-এর জন্ম হয় (আদি৫:৩)। শেথ-এর ১০৫ বছর বয়সে ইনোশের জন্ম হয় (আদি৫:৬)। ইনোশের ৯০ বছর বয়সে কৈননের জন্ম হয় (আদি৫:৯)। এভাবে আদিপুস্তক ৫ অধ্যায় এবং আদিপুস্তক ১১ অধ্যায়ের বংশতালিকার ধরন আনুযায়ী এই তালিকায় কোনো ফাঁক নেই। আদিপুস্তক ১২:৪ পদ আমাদের সাহায্য করে এই সময় বের করতে যখন অব্রাহাম হারাণকে ছেড়ে চলে আসেন। এই সময়টা ছিল অবশ্যই সৃষ্টির ২০৮৩তম বছর।
আদিপুস্তক ১২:১০ পদের মাধ্যমে আমরা জানতে পারি অব্রাহামের উত্তরসূরিরা মিসরে ছিল ৪৩০ বছর। ১ম রাজাবলী ৬:১ পদের মাধ্যমে আমরা জানতে পারি শলোমন রাজা মন্দির নির্মাণ করেন ইস্রায়েল জাতি মিসর দেশ থেকে বের হয়ে আসার ৪৭৯ বছর পর। দেশ ভাগ হয়ে যায় শলোমন রাজা মারা যাবার ৩৭ বছর পর। এই সময়ের ৩৯০ বছর পর যিরূশালেম ধ্বংস হয়ে যায়(যিহিষ্কেল ৪:৪-৬পদ)। এই সংখ্যাগুলো যোগ করলে আমরা পেয়ে যাব যিরূশালেমের ধ্বংসের সময়। এবং এই সময়টি হচ্ছে অবশ্যই ৩৪১৯। এই সময়কে বাইবেলে আরেকটি সাল হিসাবে বলা হয় আর তা হচ্ছে ৫৮৪বিসি। এখন ৩৪১৯ ও ৫৮৪ যোগ করা হলে আমরা পৃথিবীর বয়স পাব ৪০০৩। এরপর যীশুর জন্মের পর প্রায় ২০০০ বছর পার হয়ে গেছে। অতএব, আমরা এখন ৪০০৩ ও ২০০০ বছর যোগ করলে পাব ৬০০৩ বছর।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

নতুন লেখা

ঈশ্বর আপনার সঙ্গে চলছেন

https://www.youtube.com/watch?v=GhqCxrHrYvs আমরা এই সময়ে করোনার আতঙ্কের মধ্য দিয়ে যাচ্ছি। একই সঙ্গে আমরা বাংলাদেশে ভয়াবহ আম্পান ঝড়ের মোকাবেলা করলাম। করোনার এই...

গান বই -এর এন্ড্রয়েড এ্যাপ

গীর্জায় বা যে কোন ধর্মীয় সভায় বাইবেলের পাশাপাশি গান বই -এর কোন বিকল্প নেই। বর্তমান প্রজন্মে প্রায় সবার ফোনেই...

জেলখানা ও ভেঙে যাওয়া জাহাজ (পৌল)

পৌল যিরূশালেমে এসেছেন বেশী দিন হয় নি, কিন্তু এরই মধ্যে পৌলকে নিয়ে আরেকটি হুলস্থুল শুরু হয়ে যায়। যিহূদীরা ভেবেছিল...

পৌলের প্রচার যাত্রা

সিরিয়া দেশের আন্তিয়খিয়া শহরে অনেক লোক যীশু খ্রীষ্টকে বিশ্বাস করে খ্রীষ্টিয়ান হচ্ছিল। তাই সেখানে যীশুর বিষয় শিক্ষা দেবার জন্য...

পিতর ও কর্ণীলিয়

এদিকে পুরোহিতদের অত্যাচারে যারা বিভিন্ন জায়গায় ছড়িয়ে পড়েছিল পিতর তাদের কাছে গিয়ে দেখাশুনা করতে লাগলেন। তিনি যখন যীশুর বিষয়ে...

আপনার ভাল লাগতে পারেএকই লেখা
আপনার জন্য লেখা