জিজ্ঞাসা

খ্রীষ্টিয়ানদের এত ভিন্ন মত কেন?

বাইবেল বলে “একজনই প্রভু আছেন, একই বিশ্বাস আছে, একই বাপ্তিস্ম আছে” (ইফিষীয় ৪:৫পদ)। “একজনই পবিত্র আত্মা আছেন” (ইফিষীয় ৪:৪পদ)। এতেই স্পষ্ট বোঝা যায় খ্রীষ্টেতে আমরা সবাই এক এবং আমাদের বিশ্বাস একই হওয়া উচিৎ। ইফিষীয় ৪:৩ পদে পৌল একতা রক্ষা করার জন্য বিশেষভাবে চেষ্টা করতে বলেছেন। ১ করিন্থীয় ২:১০-১৩ পদ অনুসারে একমাত্র পবিত্র আত্মাই ঈশ্বরের মনকে বুঝতে পারে এবং আমরা পবিত্র আত্মার মাধ্যমে ঈশ্বরকে বুঝতে পারি।২তিমথীয় ২:১৫ পদ অনুযায়ী প্রত্যেক বিশ্বাসীকেই প্রার্থনাপূর্বক পবিত্র আত্মার সহযোগীতায় ঈশ্বরের বাক্য শিক্ষা দিতে হবে। কিন্তু যারা ঈশ্বরের বাক্য শিক্ষা দেন তারা সবাই পবিত্র আত্মার সহযোগীতায় তা করেন এমন নয়। আমাদের সমাজে এমন অনেকেই আছে, যারা নতুন জন্ম প্রাপ্ত খ্রীষ্টিয়ান নয় কিন্তু তবু্ও তারা নিজেকে খ্রীষ্টিয়ান বলে দাবি করে। যে কোন শিক্ষককে প্রশ্ন করে দেখুন-সবচেয়ে ভাল ক্লাসেও এমন কিছু শিক্ষার্থী থাকে যারা শিক্ষকের কথা শোনে না। একই ভাবে পবিত্র আত্মার সহায়তা ছাড়াই ভিন্ন ভিন্ন লোক বাইবেলের ভিন্ন ভিন্ন মত দেয়। খ্রীষ্টিয়ানদের ভিন্ন মত হওয়ার এটি একটি প্রধান কারণ। এছাড়া আরও কিছু প্রধান কারণ হচ্ছে অবিশ্বাস, শিক্ষার অভাব,স্বার্থপরতা, গর্ব, অপরিপক্কতা ও প্রথাগত পিছুটান।

রেডিও